দক্ষিণ কলকাতা পূজা পরিক্রমা 

দক্ষিণ কলকাতা পূজা পরিক্রমা 

দক্ষিণ কলকাতা পূজা পরিক্রমা    সাউথ কলকাতার জন্য আমরা শুরু করব কসবা থেকে। প্রথমেই কসবা পৌঁছে আমরা দেখে নিন বোস পুকুর শীতলা মন্দির। তারপর কিছুটা পায়ে হেঁটে দেখে নিতে হবে তালবাগান। এরপরে একটা অটো ধরে(অটো বিকেল তিনটে অবধি চলবে) বা বাস ধরে চলে আসুন গড়িয়াহাট। বাস থেকে নেমে গড়িয়াহাট এর উড়ালপুল বরাবর দক্ষিণ দিকে কিছুটা এগোলেই একডালিয়া এভারগিন। একটু এগিয়ে সুইনহ স্ট্রীট এ দেখে নিন ফাল্গুনী সংঘ ও দুরগাবাড়ি এটা দেখা হলে, বাম হাতে ফাল্গুনী সংঘ ও ডান হাতে দুরগাবাড়ি ও মাঝ বরাবর যে রাস্তাটা গেছে ওটা বন্ডেল রোডে মিশেছে ওই রাস্তাটা ধরে একটু এগোলেই 21পল্লীর পুজো, এটা দেখার পর গড়িয়াহাট পার্ক সার্কাস গামী বড় রাস্তায় চলে আসুন, বড় রাস্তায় পৌঁছে বাস ধরে চলে আসুন গরিয়াহাটে,নেমে পড়ুন একডালিয়া ঢোকার মুখটাতে। যে ফুটে একডালিয়া গেলেন তার বিপরীতে এসে একটু এগোলেই সিংহী পার্ক। সিংহী পার্ক দেখে আবার চলে আসুন  গড়িয়াহাটের মোড়ে। গড়িয়াহাট এর মোড় থেকে একটা বাস ধরে চলে আসুন যোধপুর পার্ক, 95পল্লী ও পল্লিমঙ্গল সমিতির পুজো। যোধপুর পার্কের পুজো দেখা পায়ে হেঁটে চলে আসুন সেলিমপুর। ওখানে সেলিমপুর পল্লী দেখে এবার ঢাকুরিযার দিকে আসুন। দেখে নিন বাবুবাগান এর পুজো। ঢাকুরিয়া থেকে একটা বাস ধরে চলে আসুন গোলপার্কের মোড়ে। এখান থেকে পুর্নদাস রোড ধরে চলে আসুন হিন্দুস্তান পার্ক (আপনার ডান দিকে পড়বে), এটা দেখা হলে আবার পূর্ণদাস রোড ধরে এগোলেই বামহাতে পড়বে বালিগঞ্জ কালচারেল। পাশেই রয়েছে সমাজসেবী চাইলে ওটা দেখে লেক ভিউ রোড ধরে বা পূর্ণদাস রোড ধরে(যদি সমাজসেবী স্কিপ করেন) রাসবিহারী এভিনিউ আসুন। একটা ক্রসিং পড়বে পর পর দুটো রাস্তা একটা মনোহর পুকুর রোড আরেকটি মতিলাল নেহেরু রোড, মতিলাল নেহেরু রোড ধরুন। একটু এগোলেই বাম হাতে দক্ষিণ কলিকাতা সার্বজনীন, এটা দেখে সোজা একই রাস্তায় এগোলে দান হাতে ত্রিধারা সম্মিলনী। এপথে সোজা...
দক্ষিণ কলকাতার কিছু পুজো দেখতে যাবার Route Map – শুভব্রত সান্যাল

দক্ষিণ কলকাতার কিছু পুজো দেখতে যাবার Route Map – শুভব্রত সান্যাল

আজ আলোচনা করবো একট দক্ষিণ কলকাতার দুর্গা ঠাকুর দেখার ব্যাপারে। যে ঠাকুর গুলো আমরা দেখতে চলেছি এই তালিকায় সেগুলোর মধ্যে কোনো প্যান্ডেল সনাতনী ঐতিহ্যের ধারক কোনোটি অপরূপ শিল্প সুষমায় উজ্জ্বল। আবার কোনটি শিল্পের মাধুর্য বজায় রেখেও সনাতনী মায়ের রূপ বজায় রেখেছে। আসুন শুরু করি… রুট প্ল্যান 1 শিয়ালদাহ স্টেশনের দক্ষিণ শাখা থেকে বজবজ বাদে যে কোনো ট্রেন ধরে আমরা সহজেই পৌঁছে যাব ঢাকুরিয়া স্টেশন। line পাল্টে রাস্তায় এসে গলি দিয়ে মিনিট পাঁচেক এগোলেই আমরা পাবো বাবুবাগান। দেখে নিয়ে একটু সংলগ্ন মাঠে খাওয়া দাওয়া করে আমরা বান্ধব সম্মেলনী দেখে main road এ এসে একটু খানি হেঁটেই চলে যাবো সেলিমপুর পল্লী। পল্লী দেখে আবার main road এ এসে রাস্তা পেরিয়ে আমরা পাবো যোধপুর পার্ক। আর তার সমান্তরাল রাস্তায় 95 পল্লী, দেখা শেষ। আবার বড় রাস্তায় এসে বাস ধরবো বালিগঞ্জ যাওয়ার,অনেক বাস পাবো। নামবো গড়িয়াহাট ব্রীজ পেরিয়ে pantaloons এর সামনে। পিছিয়ে এসে দেখে নেব সিংহী পার্ক। কিছুটা পাশে হিন্দুস্থান পার্ক,এরপর একডালিয়া ফাল্গুনী সঙ্ঘ দেখে বালিগঞ্জ স্টেশন দিয়ে বাড়ি। রুট প্ল্যান 2 Sealdah station থেকে বজবজ গামী ট্রেনে new alipore নেবে একটু খানি হেঁটেই পাবো দক্ষিণ কলকাতার বড় পুজো সুরুচি সঙ্ঘ। দেখা হয়ে গেলে auto 20 টাকা প্রতিজন বা min 20 হেঁটে আপনি পৌঁছে যান আর এক বড় পুজো চেতলা অগ্রণী। এর পর ধরুন রাসবিহারী avenue, কালীঘাট মন্দিরের কাছে আসতেই আপনি পেয়ে যাবেন বাদামতলা আষাঢ় সঙ্ঘ ও 66 পল্লী। দুটোই একদম পাশাপাশি। আরো কিছুটা এগিয়ে আসুন, চার রাস্তার মোড়, ডান দিকে গেলে পাবেন শিবমন্দির ও মুদিয়ালি। এই দুই ঠাকুরের মধ্যবর্তী রাস্তার নাম জানেন? রজনী সেন রোড, চেনা চেনা লাগছে?? লাগবেই তো, আমাদের কিশোর জীবনের চির সাথী ফেলুদার বাড়ি ই তো 21 রজনী সেন রোড। যদিও বাস্তবে 21A আর 21B আছে। রাস্তা দিয়ে হাঁটুন,...
উত্তর কলকাতার পূজা পরিক্রমা

উত্তর কলকাতার পূজা পরিক্রমা

কলকাতায় দুর্গাপুজো কাগজে কলমে চার দিন অর্থাৎ ষষ্ঠী থেকে দশমী হলেও,পুজোর রেশ শুরু হয়ে যায় তৃতীয়া, চতুর্থী থেকেই। কিন্তু তা হলেও সঠিক পরিকল্পনা ও রুট গাইড না থাকলে, পুরো কলকাতার পুজো এই চারদিনে ঘুরে দেখা প্রায় অসম্ভব। তাই সেসব কথা মাথায় রেখেই এবারে আমরা কলকাতার পূজা গুলোকে মোট চার ভাগে ভাগ করে আপনাদের জন্য পূজা পরিক্রমার রুট প্রস্তুত করলাম। এই পর্বে আপনাদের জন্য থাকছে উত্তর কলকাতার পূজা পরিক্রমা। এই রুট গাইডটা তৈরী করেছেন অতনু চক্রবর্তী উত্তর কলকাতার পূজা পরিক্রমাঃ শুরু করবেন শ্যামবাজার পাঁচ মাথার মোড় থেকে। শ্যামবাজার পাঁচ মাথার মোড় থেকে যে রাস্তাটা বিটি রোড দিকে গেছে সেই বিটি রোড ধরে মিনিট সাতেক হাঁটলেই একটি ব্রিজ পড়বে, ব্রিজের ডানদিকে একটি রাস্তা গিয়েছে টালা বারোয়ারি পূজা প্রাঙ্গনের দিকে। টালা বারোয়ারি পূজা দেখে ইন্দ্রমিত্র স্ট্রীট ধরে কিছুটা গেলেই টালা প্রত্যয়। টালা প্রত্যয় পূজা দেখা হয়ে গেলে যে পথে গিয়েছিলাম সেই পথেই ফিরে আসব মানে শ্যামবাজার পাঁচ মাথার মোড় একটু আগে ডানদিকে পড়বে বাগবাজার স্ট্রিট। বাটার জুতোর দোকানের সামনে থেকে পাওয়া যাবে বাগবাজার যাবার অটো। অটোতে চেপে চলুন বাগবাজার সার্বজনীনের পূজা দেখতে। দেখা হয়ে গেলে এক্সিট পয়েন্ট দিয়ে ডানদিকে কিছুটা হেঁটে রবীন্দ্র সরণির রাস্তা ধরুন। বাঁদিকে হেঁটে এগিয়ে চলুন কুমোরটুলী সার্বজনীনের পূজা দেখতে। এর পরে একে একে দেখুন জগৎ মুখাজ্জী পার্ক, কুমোরটুলী পার্ক। কুমোরটুলী পার্ক দেখা হয়ে গেলে অটো (৩ টের পরে অটো বন্ধ হয়ে যায়) বা টানা রিকশা করে চলুন আহিরীটোলা সার্বজনীন। এরপরে পায়ে হেঁটে দেখুন আহিরীটোলা যুববৃন্দ আর বেনিয়াটোলা সার্বজনীন। এর পরে হেঁটে চলে আসুন বি কে পালের মোড়ে বা আর একটু এগিয়ে পূর্ণ চন্দ্র সুরাইয়ের জামাকাপড়ের দোকানের সামনে। বাস বা অটো বা টানা রিকশা ধরে চলুন হেদুয়ার কাছে কাশীবোস লেনের পূজা দেখতে। তারপরে পায়ে হেঁটে চলুন হাতিবাগানের দিকে। প্রথমেই পড়বে...
দুর্গাপূজা ভ্রমণ গাইড 2018

দুর্গাপূজা ভ্রমণ গাইড 2018

দুর্গাপূজা ভ্রমণ গাইড 2018 দুর্গাপূজামানেই কলকাতায় সাজ সাজ রব। পুরো কলকাতা জুড়ে শহরের অলিতে গলিতে দুর্গাপূজা হয়ে থাকে। একসাথে সব পুজো দেখবো ভাবলে দুর্গা পূজার চারদিন কম পড়ে যাবে। তাই আগেথেকে পরিকল্পনা করে পুজোর প্ল্যান করতে হয় প্রতিবারই। এবারের পুজোগাইড এর প্রথম পর্বে আমি কলকাতার বিভিন্নদিকের সেরা সেরা কিছু পুজোর নাম তুলে ধরব। আর সেগুলি কোনটা কোথায় তা নিয়েও আলোচনা করব। আমরা প্রথমেই কলকাতার পূজগুলিকে দুটি ভাগে ভাগ করে নেব। 1. নর্থ কলকাতা 2. সাউথ কলকাতা এবার দেখেনেব নর্থ কলকাতার কিছু সেরা পুজো 1. শোভাবাজার , শ্যামবাজার ও গিরিশ পার্ক ১. কুমরটুলী পার্ক সার্বজনীন। ২. আহিরীটোলা সার্বজনীন ও আহিরীটোলা যুবক বৃন্দ ৩. সিমলা স্ট্রীট ৪. কুমরটুলী সার্বজনীন ৫. বেনিয়াটোলা সার্বজনীন ৬. পাথুরিঘাটা পাঁচের পল্লী ৭. দর্প নারায়ণ ঠাকুর স্ট্রীট ৮. বাগবাজার সার্বজনীন ৯. টালা সার্বজনীন ১০. টালা প্রত্যয়ী ১১. সিমলা ব্যায়াম সমিতি ১২.  টালা বারোয়ারী ১৩. জগৎ মুখার্জী পার্ক 2. হাতিবাগান বা খান্না সিনেমার মোড় ১.  হাতি বাগান সার্বজনীন 2. কাশীবোস লেন ৩. নলীন সরকার স্ট্রীট ৪. নবীন পল্লী ৫. সিকদার বাগান 3. উল্টোডাঙ্গা ১. উল্টোডাঙ্গা পল্লীশ্রী ২. উল্টোডাঙ্গা সংগ্রামী ৩. উল্টোডাঙ্গা যুববৃন্দ ৪. গৌরিবাড়ি সার্বজনীন ৫. তেলেঙ্গাবাগান ৬. কর বাগান 4. মানিকতলা ১. চালতাবাগান লোহাপট্টি ২. বিবেকানন্দ স্পোর্টিং ক্লাব ৩. লালাবাগান নবাংকুর ৪. সম্মিলিত লালাবাগান ৫. হালসিবাগান 5. কাঁকুরগাছি ১. বেলেঘাটা 33 পল্লী ২. কাঁকুরগাছি মিতালি সংঘ ৩. কাঁকুরগাছি যুবক বৃন্দ ৪. কাঁকুরগাছি স্বপ্নার বাগান 6. দমদম ও লেকটাউন 6. লেকটাউন, দমদম ও কেষ্ট পুর ১. গোলাঘাটা সার্বজনীন ২. শ্রীভূমি স্পোর্টিং ক্লাব ৩. লেকটাউন নেতাজী স্পোর্টিং ৪. লেকটাউন অধিবাসী বৃন্দ ৫. নতুনপল্লি প্রদীপ সংঘ ৬. দমদম পার্ক ভারত চক্র ৭. দমদম পার্ক তরুন সংঘ ৮. দমদম পার্ক তরুন দল ৯. দমদম পার্ক সার্বজনীন ১০. দমদম পার্ক যুবকবৃন্দ ১১....
উইকএন্ডে ঝিলিমিলি – সাথে জঙ্গল মহলের সুতান, কাঁকড়াঝোড়

উইকএন্ডে ঝিলিমিলি – সাথে জঙ্গল মহলের সুতান, কাঁকড়াঝোড়

ঝিলিমিলি – সাথে জঙ্গল মহলের সুতান, কাঁকড়াঝোড় শান্ত নিরিবিলি পরিবেশে শালের জঙ্গলে ছাওয়া একটি টিলার উপর ইকো ট্যুরিজম রিসর্টের ট্রি হাউস। ট্রি হাউসের বারান্দায় বসে সারাদিন গাছে গাছে নানা পাখির ডাক শোনা, গাছের গায়ে কাঠবিড়ালিদের দাপাদাপি, বা নিচের জমিতে মুরগীদের খেলে বেড়ানো, টিলার নিচের জঙ্গল, মাঠঘাটের পানে চেয়ে সবুজের আস্বাদন, কখনও বা নিচে গ্রামের রাস্তায় দু একটি গাড়ির শব্দ। যেদিকে চোখ যায় শুধুই সবুজ আর সবুজ। উইকএন্ডে ঘুরে আসতে পারেন ঝিলিমিলি (Jhilimili)। সাথে জঙ্গল মহলের বন্য পরিবেশে তালবেরিয়া ড্যাম, সুতানের জঙ্গল, কাঁকড়াঝোড়, বেলপাহাড়ী। বাঁকুড়া জেলায় হলেও ঝিলিমিলির অবস্থান তিনটি জেলা – বাঁকুড়া, পুরুলিয়া ও ঝাড়গ্রামের সংযোগ স্থলের কাছে। শনিবার সকাল সকাল ইস্পাত এক্সপ্রেস ধরে পৌঁছে গেলাম ঝাড়গ্রাম। আরেকবার জঙ্গলমহলে ভ্রমণ। স্টেশন থেকেই গাড়িতে রওনা হলাম ৬৫কিমি দূরের ঝিলিমিলি। একে একে পার হলাম দহিজুড়ি, শিলদা, বেলপাহাড়ী, ভুলাভেদা। জঙ্গল মহলের এই সব জায়গা কয়েক বছর আগে অশান্তির কারণে থাকত খবরের শিরোনামে। তবে আজ একেবারে শান্ত। আজ জঙ্গল মহল সমস্ত অশান্তির স্মৃতি সরিয়ে নতুন ভাবে পর্যটনের স্বপ্ন দেখছে। সুন্দর পিচ রাস্তা চলে গেছে জঙ্গল ও আদিবাসী গ্রাম পেরিয়ে। বছর দুয়েক আগেও একবার এসেছিলাম এ পথে। সেবার ঝাড়গ্রাম থেকে ভুলাভেদা পেরিয়ে ‘লালজল’ ফরেস্ট অবধি এসেছিলাম। এবার ভুলাভেদা ছাড়িয়ে বাঁশপাহাড়ী পেরিয়ে আরো খানিকটা চলে দেড় ঘন্টাতেই পৌঁছে গেলাম বাঁকুড়া জেলার ঝিলিমিলি। ঝিলিমিলির বাজার থেকে আধা কিমি দূরে জঙ্গলে ঢাকা ‘রিমিল গেস্ট হাউস’ (Rimil Guest House)। টিলার উপর অবস্থিত রিমিল লজটি স্থানীয় পঞ্চায়েতের উদ্যোগে নব কলেবরে সেজে উঠেছে। ২০১৭ সালে গড়ে উঠেছে ইকো ট্যুরিজম। রিমিলে থাকার জন্য মূল লজের AC, non-AC রুম ছাড়াও আছে সুন্দর কটেজ ও সবচেয়ে আকর্ষণীয় দুটি ট্রি হাউস। আসল গাছের উপর নয়, কৃত্রিম ভাবে বানানো ‘গাছ বাড়ি’। সবুজের মাঝে নিরিবিলিতে দু একটি দিন অবকাশ যাপনের আদর্শ জায়গা ঝিলিমিলির এই রিমিল লজ।...